আফ্রিকায় প্রাগৈতিহাসিক মানুষের রহস্যজনক একটি প্রজাতির সন্ধান

শেয়ার করুন!

আফ্রিকার উপ-সাহারীয় অঞ্চলের অধিবাসীদের মুখের লালায় একটি প্রোটিন বিশ্লেষণ করে জানা গেছে, তাদের প্রাগৈতিহাসিক আমলের পূর্বসূরিরা মানুষের অন্য একটি প্রজাতির সাথে সঙ্কর প্রজনন করেছিল।

বিজ্ঞানীদের মতে, সে সময় বিভিন্ন প্রজাতিদের মাঝে সঙ্কর প্রজননের মাধ্যমে মিশ্র প্রজাতির জন্ম দেওয়া একটি স্বাভাবিক ঘটনা ছিল। কিন্তু আফ্রিকানদের পূর্বসূরিদের সাথে মিলিত হওয়া সেই রহস্যজনক প্রজাতির কোনো ফসিল খুঁজে পাওয়া যায় নাই। তাই এই প্রজাতিকে তারা ‘ঘোস্ট (Ghost)’ বলে চিহ্নিত করছেন।

বিজ্ঞানীদের মতে, সে সময় বিভিন্ন প্রজাতিদের মাঝে সঙ্কর প্রজননের মাধ্যমে মিশ্র প্রজাতির জন্ম দেওয়া একটি স্বাভাবিক ঘটনা ছিল।

ওই প্রোটিনের জিনেটিক কোডের ইতিহাস থেকে এই তথ্য পাওয়া যায়। প্রোটিনটি তাদের লালা’র আঁঠালো ঘনত্ব তৈরিতে ভূমিকা রাখে। যা নানা ধরনের উপকারী জীবাণু আটকে রাখতে সাহায্য করে। ফলশ্রুতিতে তাদের শরীর রোগ সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়াকে প্রতিরোধ করতে পারে।

এই রহস্যজনক প্রজাতিটি ইতোমধ্যে আবিষ্কৃত অন্য কোনো মানব প্রজাতির উপ-প্রজাতিও হতে পারে—যেমন হোমো-ইরেক্টাস।

কমেন্ট করুন

মন্তব্য

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here