ইউএস-কোরিয়া সঙ্কট: উত্তর কোরিয়ার সামরিক বাহিনিতে শত শত ছাত্রের যোগদান

শেয়ার করুন!

১৯৫১ সালের পর আন্তর্জাতিক মহলের সাথে কোরিয়ান উপদ্বীপের বিরাজমান উত্তেজনা বর্তমানে একেবারে চূড়ান্তে পৌঁছেছে। উত্তর কোরিয়ার স্বৈরশাসক কিম জং-উন প্রশান্ত মহাসাগরে মিসাইল পরীক্ষা করার ঘোষণা দিয়েছেন। এ মহাসাগরেই নিউক্লিয়ার শক্তিধর বি-টু বোমারু বিমান সংরক্ষিত থাকে।

এই চরম উত্তেজনাপূর্ণ সময়েই উত্তর কোরিয়ার সেনাবাহিনিতে দলে দলে ছাত্ররা যোগ দিয়েছে। গত সপ্তাহে কিম এবং ট্রাম্প পরস্পরের সাথে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন এবং সেখানে হুমকির লেনদেনও ছিল। ভাইস প্রেসিডেন্ট পেন্স কম্বোডিয়া সফরে গিয়ে ভেনেজুয়েলা ও উত্তর কোরিয়ার সাথে ক্রমশ অবনতির দিকে এগিয়ে যাওয়া সম্পর্কের কথা উল্লেখ করেন।

আরো পড়ুন: কিম জং উন—উত্তর কোরিয়ার নবীন ডিকটেটর

গুয়াম অঞ্চল আক্রমণের হুমকি দিয়েছে উত্তর কোরিয়া। বিপরীতে প্রশান্ত মহাসাগর থেকে কোরিয়ান উপদ্বীপে বি-টু বোমারু বিমানের বহর পাঠিয়ে নিজের ক্ষমতা প্রদর্শন করেছেন ট্রাম্প।

কিম জং উন

গুয়ামের ক্যাথলিক পুরোহিতরা শান্তির জন্য প্রার্থনা করছেন। তাদের আর্চবিশপ দুই দেশের ‘কাজে এবং কথায় বিচক্ষণতার’ আহ্বান জানিয়েছেন। তবে সেই বক্তব্যে অবশ্য ডনাল্ড ট্রাম্পকে তার বিবৃতিতে সংযত থাকতে বলার প্রতিফলনই ছিল বেশি।

আরো পড়ুন: উত্তর কোরিয়ায় যুদ্ধের সম্ভাবনা কেমন? – মুরাদুল ইসলাম

উল্লেখ্য, উত্তর কোরিয়ার সামরিক বাহিনিতে নাম তালিকাভুক্ত করার সময় শত শত ছাত্রের ছবি তোলা হয়। এই বিচ্ছিন্ন রাষ্ট্র ও ইউএসের মধ্যকার চলমান সঙ্কটের মুহূর্তে এরকম স্বেচ্ছাসেবী কার্যক্রম গুরুত্বপূর্ণ ইঙ্গিত বহন করে।

ডেইলি মেইল, ১৩ আগস্ট ২০১৭ 

কমেন্ট করুন

মন্তব্য

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here