ছবিতে বিশ্বসংবাদ – ১৫ জুলাই ২০১৭

শেয়ার করুন!

১০. হাওয়াইয়ের হনলুলুতে বহুতল ভবনে আগুন

অন্তত ৩ জন নিহত ও ১২ জন আহত। অগ্নি নির্বাপন ব্যবস্থা ‘স্প্রিংকলার’ না থাকায় এমনটা হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

– সিবিএস নিউজ

২. কলম্বিয়ায়  সবচাইতে বেশি কোকেইনের চাষ

জাতিসঙ্ঘের তথ্য অনুযায়ী, কলম্বিয়ায় দেশটির ইতিহাসে সবচাইতে বেশি কোকেইনের চাষ হচ্ছে এখন।

২০১৬ সালে বিভিন্ন গুপ্ত গবেষণাগারে প্রায় ৮৬৬ টন কোকেইন উৎপাদিত হয়েছে। এই বছর শেষে দেশটির সরকার ১ লক্ষ হেক্টর কোকা ধ্বংস করে ফেলার উদ্যোগ নিয়েছে।

– সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট

৩. ডনাল্ড ট্রাম্পের কিউবা পলিসি’র নিন্দা করলেন রাউল কাস্ত্রো
এক মাস আগে কমিউনিস্ট এই দ্বীপের সাথে আমেরিকার ব্যবসায়িক ও যাতায়াত ব্যবস্থা সীমাবদ্ধ করে দেন ট্রাম্প। এ নিয়ে প্রথমবারের মতো জনসমক্ষে মুখ খুললেন কাস্ত্রো।

– বিবিসি

৪. ট্রাম্পের রহস্যজনক বন্ধু জিম


নিজের ক্যাম্পেইন চলাকালীন তার এই বন্ধুর ব্যাপারে কথা বলেছিলেন ট্রাম্প; যে কিনা প্যারিসের একজন একনিষ্ঠ ভক্ত হওয়া সত্ত্বেও এখন আর সেখানে যায় না। কারণ প্যারিসে বিদেশী চরমপন্থীদের সংখ্যা বেড়ে গেছে অনেক।

– ফ্রান্স টুয়েন্টি ফোর

৫. ফ্রান্সে বাস্তিল ডে উদযাপিত

গতকাল ফ্রান্সে বাস্তিল ডে উদযাপিত হয়। বাস্তিল ডে’র অন্তিম মুহূর্তে।

– চায়না ডেইলি

৬. দক্ষিণ আফ্রিকা: দুই শ্বেতাঙ্গের জামিনে বিক্ষোভ

দক্ষিণ আফ্রিকায় কৃষ্ণাঙ্গ এক যুবককে জীবন্ত অবস্থায় কফিনে পুঁতে ফেলার চেষ্টা করে দুই শ্বেতাঙ্গ কৃষক। গ্রেপ্তারের পর তাদেরকে জামিনে মুক্তি দেওয়ায় জনগণের বিক্ষোভ।

– আফ্রিকা নিউজ

৭. কাতারের সাথে আমাদের সম্পর্ক ভালো থাকবে : ট্রাম্প

সৌদি-পরিচালিত দলের অবরোধ সত্ত্বেও কাতার থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বিমান ঘাঁটি সরিয়ে নেওয়া হবে না বলে জানালেন তিনি।

– আলজাজিরা

৮. মিশরে দুই জার্মান পর্যটক নারী নিহত

মিশরের বীচ রিসোর্টে ইউরোপীয় পর্যটকরা ছুরিবিদ্ধ; দুই জনের মৃত্যু। নিহত দুইজন জার্মানির নাগরিক। আর বাকি চারজন আহতসহ ছয় জনের প্রত্যেকেই নারী।

– নিউ ইয়র্ক টাইমস

৯. ওজে সিম্পসনের শুনানি, নেভাডা কর্তৃপক্ষের রায়ের অপেক্ষা

নির্বাহী আদেশে তাকে মুক্তি দেওয়ার ব্যাপারে নেভাডা বোর্ড এই শুনানির আয়োজন করবে আগামী মাসে। প্রায় এক দশক আগে লাস ভেগাসে ডাকাতির অভিযোগে আমেরিকার ইতিহাসের সবচাইতে কুখ্যাত ব্যক্তিদের মাঝে একজন সিম্পসনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

– এনবিসি নিউজ

১০. তারা নিজেদের দেশে শুধু মৃত্যুর পরই ফিরে আসতে পারেন

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক সেনা সদস্যরা অবস্থান করছেন মেক্সিকো-যুক্তরাষ্ট্রের সীমান্তে।

হেক্টর বারাহাস এবং আলেহান্দ্রো গোমেজ যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনিতে অ-নাগরিক হিসাবে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেছিলেন। অব্যাহতি পাবার পর আইনি জটিলতায় তাদেরকে জেল খাটতে হয়। অতঃপর ভিসা বাতিল করে তাদেরকে নির্বাসিত করা হয় মেক্সিকোতে। বর্তমানে টিহুয়ানায় হেক্টরের প্রতিষ্ঠিত ‘ডিপোর্টেড ভেটেরানস সাপোর্ট হাউজ’ এ বসবাস করেন তারা।

‘দ্য বাঙ্কার’ নামে পরিচিত এই জায়গায় প্রায় ৩০০ নির্বাসিত নারী-পুরুষের অবস্থান। এর প্রকৃত সংখ্যা অন্তত দুই হাজার বলে ধারণা করছেন অধিবাসীরা। সেনাবাহিনির প্রাক্তন এই সদস্যরা প্রায় সবাই যুক্তরাষ্ট্রে বেড়ে উঠেছেন। অবৈধ অভিবাসী মা-বাবাদের ব্যাপারে মিথ্যা কথা বলে নিজেদের পরিচয় গোপন রেখে সেনাবাহিনীতে যোগ দিয়েছিলেন অনেকে। প্রেসিডেন্ট হবার আগে এই বিতাড়িত সেনাদেরকে ফিরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিলেও এখনো পর্যন্ত কিছুই করেন নাই ডনাল্ড ট্রাম্প।

যুক্তরাষ্ট্রের সেনা হিসাবে জাপানে থাকাকালীন আলেহান্দ্রো গোমেজের বাগদত্তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। তার অন্ত্যেষ্ট্রিক্রিয়ায় নিজের দায়িত্ব ছেড়ে আসতে দেওয়া হয় নাই গোমেজকে।
হেক্টর বারাহাস ‘ডিপোর্টেড ভেটেরানস সাপোর্ট হাউজ’ চালু করেন সাত বছর আগে।

– এনবিসি নিউজ ডট এইউ

কমেন্ট করুন

মন্তব্য

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here