page contents
লাইফস্টাইল, সংস্কৃতি ও বিশ্ব
আন্তর্জাতিক

বিজ্ঞানীরা বলছেন, সান ক্রিম স্কিন ক্যান্সারের আশঙ্কা দূর করে না!

সম্প্রতি একটি গবেষণায় দেখা গেছে হাই ফ্যাক্টর সান ক্রিমগুলিও স্কিন ক্যান্সারের আশঙ্কা থেকে সম্পূর্ণ সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারে না।

যুক্তরাজ্য ক্যান্সার গবেষণার একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে হাই ফ্যাক্টর সান ক্রিমগুলি রোদের কারণে ডিএনএ ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া কমাতে পারে। এটি বড়জোর ম্যালিগনেন্ট মেলানোমার (malignant melanoma) ব্যাপারটিকে ধীরগতির করে দিতে পারে কিন্তু সম্পূর্ণ সুরক্ষা দেয় না।

ম্যালিগন্যান্ট মেলানোমা এখন যুক্তরাজ্যের কমন ক্যান্সারগুলির মধ্যে ৫ নম্বরে রয়েছে। প্রতি বছর ১৩ হাজারেরও বেশি মানুষ যুক্তরাজ্যে এই রোগের কারণে ডায়গনোসিস করায়।

ইঁদুরের উপর গবেষণা চালিয়ে দেখা গেছে হাই ফ্যাক্টর সান ক্রিম ব্যবহার করলে মেলানোমা বা স্কিন ক্যান্সার হতে শতকরা তিরিশ ভাগ সময় বেশি লাগে।

অতিবেগুনী রশ্মি থেকে নিরাপদ থাকার জন্য শুধু সানস্ক্রিন ক্রিমের উপর ভরসা করলেই হবে না। সাথে অন্যান্য ব্যবস্থাও গ্রহণ করতে হবে। যেমন, মাথায় হ্যাট বা ক্যাপ পরা, লুজ ফিটিং পোশাক পড়া, সূর্যের আলো অতিরিক্ত কড়া হলে ছায়ায় থাকা ইত্যাদি।

অতিবেগুনী রশ্মি থেকে নিরাপদ থাকার জন্য শুধু সানস্ক্রিন ক্রিমের উপর ভরসা করলেই হবে না। সাথে অন্যান্য ব্যবস্থাও গ্রহণ করতে হবে। যেমন, মাথায় হ্যাট বা ক্যাপ পরা, লুজ ফিটিং পোশাক পড়া, সূর্যের আলো অতিরিক্ত কড়া হলে ছায়ায় থাকা ইত্যাদি।

সূর্যের অতি বেগুনী রশ্মি (UV light) চামড়ার পিগমেন্ট কোষের ডিএনএ নষ্ট করে, ফলে স্কিন ক্যান্সার বা মেলানোমার আশঙ্কা বেড়ে যায়।

সাম্প্রতিকতম গবেষণায় দেখা গেছে সানস্ক্রিন ক্রিম সম্পূর্ণভাবে অতিবেগুনী রশ্মি থেকে ত্বককে সুরক্ষা দিতে পারে না।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অতিবেগুনী রশ্মি থেকে নিরাপদ থাকার জন্য শুধু সানস্ক্রিন ক্রিমের উপর ভরসা করলেই হবে না। সাথে অন্যান্য ব্যবস্থাও গ্রহণ করতে হবে। যেমন, মাথায় হ্যাট বা ক্যাপ পরা, লুজ ফিটিং পোশাক পড়া, সূর্যের আলো অতিরিক্ত কড়া হলে ছায়ায় থাকা ইত্যাদি।

 

About Author

সাম্প্রতিক ডেস্ক
সাম্প্রতিক ডেস্ক