page contents
লাইফস্টাইল, সংস্কৃতি ও বিশ্ব

মনোবিজ্ঞানীর দাবি—তার বই পড়ে শোনালে বাচ্চারা মুহূর্তেই ঘুমিয়ে পড়তে বাধ্য

প্রতি রাতে আপনি হয়তো আপনার বাচ্চাকে ‘এখন ঘুমাতে আসো’ বলেন আর সহ্য করতে হয় নানা ধরনের অজুহাত, চিৎকার এবং বাচ্চাদের মেজাজ খারাপ হয়। সব বাবা-মাই চান বাচ্চাদের ঘুমাতে বলার সাথে সাথে তারা কোনো  ঝামেলা ছাড়াই ঘুমাতে যাবে। প্রতিটি বাবা-মাই এই সমস্যা থেকে পরিত্রাণ চান। তাই আপনি হয়ত এমন বইয়ের কথা কল্পনা করেন যেটি জোরে জোরে পড়লে বাচ্চারা ঘুমিয়ে পড়বে।

সুইডেনের বিহেভিওরাল সাইকোলজিস্ট কার্ল-জোহান ফোর্সেন আর্লিনের দাবি তার বই ‘দ্য র‍্যাবিট হু ওয়ান্টস টু ফল অ্যাস্লিপ’ এই কাজটি করতে পারবে। বইটায় অনেক ছবি আছে, সে কারণে বাচ্চারা গল্পটাও শুনতে চাইবে।

rabbit-21

বইটা কীভাবে পড়ে শোনালে কাজ দেবে সে বিষয়ে পরামর্শ দেওয়া আছে। যেসব অংশ বাঁকা হরফে সেগুলি পড়তে হবে শান্ত স্বরে, ধীরে ধীরে। বাবা-মার প্রতি পরামর্শ দেওয়া আছে, পড়ার সময় তারা যেন বার বার হাই তোলেন এবং নির্দিষ্ট কিছু শব্দ জোর দিয়ে পড়েন। বইটি একই সাথে বার বার পড়ে শুনানোর মত এবং বইতে ‘ক্লান্তি’ ও ‘ঘুম’ এই ধরনের শব্দে বেশি জোর দেওয়া আছে।

ফোর্সেন আর্লিন জানান, গল্পটা শুনে বাচ্চারা নিজেদের গল্পের অংশ মনে করবে, তাই তারা খরগোশটির সাথে সাথে ঘুমিয়ে পড়বে। বইটায় তাদের আঙ্কেল ইয়ন (হাই) এবং ভারি চোখের পেচার (দ্য হেভি-আইড আউল) মত চরিত্রগুলির সাথে দেখা হবে।

rabbit-22আর্লিন জানান, তিনি আগে নেতৃত্ব ও ব্যক্তিত্ব বিকাশ বিষয়ে বই লিখেছেন। তিনি তার পদ্ধতি শিশুদের রিলাক্স করানোর ক্ষেত্রে কাজে লাগানোর কথা চিন্তা করে এই বই লেখেন। তিনি বলেন, সবগুলি টেকনিক যাতে সঠিকভাবে ব্যবহৃত হয় এমন একটি নিখুঁত গল্প তৈরি করতে তার সাড়ে তিন বছর সময় লেগেছে।

তবে অ্যামাজনে বইটি সম্পর্কে প্রতিক্রিয়া মিশ্র ধরনের। প্রতিক্রিয়ায় বইটিকে শিশুদের ঘুমানোর জন্য বিস্ময়কর উপায় থেকে বইটি কোনো কাজেরই না এমন মন্তব্যও করা হয়েছে।

তবে এ বিষয়ে গবেষণা এখনো সম্পূর্ণ হয় নি। বইটা যদি কাজ করেও থাকে তাহলে কীভাবে এবং কেন কাজ করে সে ব্যাপারে যথেষ্ট তথ্য নেই। কিন্তু বইটি যদি কাজ করে তাহলে আগ্রহোদ্দীপক কিছু প্রশ্ন তৈরি হয়:

  • কোনো প্রাপ্তবয়স্ক লোক উপস্থিত থেকে গল্প পড়ার মত ভয়েস রেকর্ডিংও কি একই কাজ করবে?
  • একই বই বার বার পড়লে দীর্ঘদিন ধরে এটা কাজ করবে কি?
  • বইটিই কি শিশুদের ঘুমাতে সাহায্য করে নাকি যেসব বাবা-মা বিশ্বাস করেন বইটি পড়লে শিশুরা ঝামেলা ছাড়াই ঘুমিয়ে পড়বে তাদের আচরণের যে সামান্য পরিবর্তন হবে তাই তাদের ঘুমাতে সাহায্য করবে?

লিংক: অ্যামাজন

About Author

নাদিয়া নাহরিন রহমান

শিক্ষার্থী: গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়