–প্রতি ঘণ্টায় অঙ্গ প্রতিস্থাপনের তালিকায় নাম জমা পড়ে ৬ জনের।–

দুর্ঘটনা ও অসুস্থতার কারণে আমেরিকায় প্রতিদিন অঙ্গহানি ঘটে প্রচুর মানুষের। এদের মধ্যে যারা অঙ্গ প্রতিস্থাপনে আগ্রহী তারা ন্যাশনাল ওয়েটিং লিস্টে তাদের নাম জমা দিয়ে অপেক্ষা করতে থাকে। প্রতি ঘণ্টায় অঙ্গ প্রতিস্থাপনের তালিকায় নাম জমা পড়ে ৬ জনের। অপেক্ষায় থাকা রোগীদের মধ্যে প্রতিদিন গড়ে মত্যু হয় ২২ জনের। এছাড়া বছরে সেখানে হৃদপিণ্ড প্রতিস্থাপনের প্রয়োজন পড়ে এক লাখেরও বেশি মানুষের। এবং প্রতি বছর লিস্টে অপেক্ষারতদের মাত্র ২০০০ জনই অঙ্গ প্রতিস্থাপনের সুযোগ পেয়ে থাকেন।

অঙ্গ প্রতিস্থাপনের এই দীর্ঘ লাইন ও অপেক্ষার সম্ভবত খুব দ্রুতই অবসান ঘটতে যাচ্ছে ।

এর সমাধানে ক্যালিফোর্নিয়ার গবেষকরা প্রতিস্থাপনের উপযুক্ত অঙ্গ সংগ্রহের সম্পূর্ণ ভিন্ন এক উৎস ব্যবহারের ঘোষণা দিয়েছেন।

তারা শূকর এবং ভেড়ায় রোগীদের শরীরে প্রতিস্থাপনের উপযুক্ত নতুন অঙ্গের বৃদ্ধি ঘটানোর গবেষণায় আশানুরূপ সাফল্য পেয়েছেন।

১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, শনিবার ইউনিভার্সিটি অভ ক্যালিফোর্নিয়ার সহযোগী অধ্যাপক এবং গবেষণাটির সহকারী লেখক পাবলো রস ঘোষণা দেন,  দ্বিতীয়বারের মতো তারা সফলভাবে মানব-পশু হাইব্রিড তৈরি করতে পেরেছেন।

“এখানে ধারণাটা হচ্ছে, নতুন অঙ্গটির বৃদ্ধি রোগীর নিজস্ব কোষের মাধ্যমেই ঘটবে।” – ড. পাবলো রস

তারা আশা করছেন, কিছুদিনের মধ্যেই অঙ্গ প্রতিস্থাপনে মানুষের স্টেম কোষ খুব ভালোভাবে ব্যবহার করা যাবে। গবেষক দলটি বলেন, প্রাথমিক স্তরে পশুর ভ্রূণে প্রতিস্থাপন করা হবে রোগীর স্টেম কোষ। পশু প্রাপ্তবয়স্ক হলে কোষ থেকে তৈরি হওয়া অঙ্গটি মানুষের শরীরে স্থানান্তরের উপযুক্ত হবে।

ইউনিভার্সিটি অভ ক্যালিফোর্নিয়ার সহযোগী অধ্যাপক এবং গবেষণাটির সহকারী লেখক পাবলো রস সিটিভি নিউজকে বলেন, “এখানে ধারণাটা হচ্ছে, নতুন অঙ্গটির বৃদ্ধি রোগীর নিজস্ব কোষের মাধ্যমেই ঘটবে।”

কোনো পশুর শরীরে এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হলে পশুর ভ্রূণের এক শতাংশ কোষ হতে হবে মানুষের। এখনো পর্যন্ত তারা শূকরের ভ্রুণে ০.০০১ শতাংশ এবং ভেড়ার ভ্রুণে ০.০১ শতাংশ মানুষের কোষ উৎপাদন করতে পেরেছেন।

মানুষের অঙ্গ বৃদ্ধিতে শূকর এবং ভেড়া ব্যবহারের কিছু সুবিধা আছে। এই দুই পশুরই এমন অঙ্গ আছে যেগুলি অাকার এবং অাকৃতিতে মানুষের মত। এবং তারা একইভাবে একটি ভ্রূণ থেকে খুব অল্প সময়েই প্রাপ্তবয়স্কে পরিণত হয়।

অাগে এ ধরনের হাইব্রিড তৈরিতে ২৮ দিনের বেশি বাড়তে দেওয়ার অনুমোদন ছিল না। পরবর্তীতে তা অনুমোদিত হয়। 

সূত্র. সিটিভি নিউজ

কমেন্ট করুন

মন্তব্য