page contents
Home ব্লগ আলী আহমাদ রুশদী

আলী আহমাদ রুশদী

কলেজের প্রাকৃতিক শোভা ছিল (এবং এখনও) অবর্ণনীয়। এক কথায় প্রথম দৃষ্টিতেই প্রেমে পড়ার মতো।
১৮৫০ সালের দিকে আমেরিকার দক্ষিণাঞ্চলে একজন ক্রীতদাসের মূল্য ছিল প্রায় চল্লিশ হাজার ডলার (এখনকার দামে) আর বর্তমান পৃথিবীতে গড়ে নব্বই ডলার।
১৭৭৫ সালে আমেরিকার ১৩টি কলোনিতে মাত্র ১২ মিলিয়ন ডলারের স্বর্ণমুদ্রা ছিল। এই পরিমাণ টাকায় যুদ্ধ চালানো তো দূরের কথা দৈনন্দিন খরচও চলার কথা নয়।
প্রফেসার মাহমুদ বললেন, ইংলিশ চ্যানেলে সাঁতার কেটে লাস্ট হবার চেয়ে তোমার স্থানীয় পুকুর বা দীঘিতে সাঁতার কেটে প্রথম হওয়া অনেক গৌরবের।
পরিকল্পনা ও দূরদর্শিতার অভাব দেখেছি নাইজেরিয়ার সর্বত্র। তেলসমৃদ্ধ এই দেশে মার্সিডিসের মালিকদেরও দেখেছি জেরিক্যান হাতে দাঁড়িয়ে থাকতে চলমান গাড়ি থেকে তেল ধার করার জন্যে।
বাদশাহ ফয়সল আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নিক্সনকে এই মর্মে সংকেত দেন যে আমেরিকা ইসরাইলকে সাহায্য করলে ওপেক তেলের দাম বৃদ্ধি করতে বাধ্য হবে।
পর্নোগ্রাফি কিংবা দেহব্যবসা বিস্তার লাভ করলেও কিছু লোকের চাকরি হয়। কিন্তু এই বিস্তার কি দেশের জন্য উন্নতি না অবনতি তা চিন্তা করে দেখার ব্যাপার।
মহামন্দা না ঘটলে জার্মানিতে নাজি পার্টির ক্ষমতারোহন সম্ভব ছিল না এবং হিটলার ক্ষমতায় না থাকলে পৃথিবীর মানুষকে দ্বিতীয় মহাযুদ্ধের ধ্বংসযজ্ঞ দেখতে হত না।
১৯২২-২৩ সালে জার্মানিতে হাইপার ইনফ্ল্যাশন হয়েছিল। সেই সময়ে চোরেরা নাকি ছালাভর্তি টাকা মাটিতে ফেলে দিয়ে শুধু ছালাটাই চুরি করত।
দেশে টাকার পরিমাণ এখন আর কেবল মাত্র স্বর্ণ কিংবা ফরেন কারেন্সির পরিমাণের ওপর নির্ভর করে না। সরকার ইচ্ছা করলেই টাকার পরিমাণ বাড়াতে বা কমাতে পারে।
0FansLike
185FollowersFollow
3,942SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Recent Posts